Breaking News

‘আগের চেয়ে ভালো’ পেস আক্রমণ

দলে এখন পেস বোলারের অভাব নেই কোনো। নিউজিল্যান্ড সফরে এবার বাংলাদেশ দলের সঙ্গী সাতজন পেসার। তবে এঁদের মধ্যে সাদা বলের ক্রিকেট সাফল্যে মুস্তাফিজুর রহমানের মর্যাদা অন্য যে কারো চেয়ে বেশি। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের বক্তব্যই দলে এই বাঁহাতি পেসারের অবস্থান বোঝাতে যথেষ্ট, ‘দলে ওর অবস্থানটা এখন এমন যে যদি একজন পেসারও (একাদশে) নিতে হয়, তবে ওকেই নিতে হবে।’

তাঁকে নিয়ে এমন মনোভাব শুধু শুধু নয়। বয়স ও অভিজ্ঞতায় অনেক এগিয়ে থাকলেও রুবেল হোসেন এবং আল-আমিন হোসেনের একাদশে জায়গা নিশ্চিত থাকে না অনেক সময়ই। চোট-আঘাতের পাশাপাশি ফর্মহীনতা যোগ হয়ে দলে আসা-যাওয়ার মধ্যে থাকেন তাসকিন আহমেদও। পেস বোলিং অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনেরও নিত্যসঙ্গী চোট।

হাসান মাহমুদ আর শরীফুল ইসলামরা তো একেবারেই নতুন। তুলনায় ব্যতিক্রম মুস্তাফিজ পারফরম করছেন নিয়মিত, সেই সঙ্গে এখন অভিজ্ঞতায়ও ঋদ্ধ হয়েছেন অনেক। দুইয়ে মিলে মাশরাফি বিন মর্তুজা-পরবর্তী সময়ে দলের পেস আক্রমণের নেতৃত্বের জোয়াল তুলে নেওয়ার আদর্শ সময়ও এসে উপস্থিত তাঁর সামনে। সেটি নিতে কতটা প্রস্তুত মুস্তাফিজ?

এখানেই অন্তর্মুখী স্বভাবের এই পেসারকে একটু বদলানোর তাগিদ দিচ্ছেন তামিম, ‘অবশ্যই (নেতা হয়ে ওঠা) ওর জন্য গুরুত্বপূর্ণ। মুস্তাফিজ এমনিতে একটু চুপচাপ থাকে। এই জায়গা থেকে ও যত তাড়াতাড়ি বের হয়ে আসতে পারবে, দলে যত বেশি ভোকাল হতে পারবে (মিডিয়ায় অতটা হওয়ার দরকার নেই), আমাদের জন্য এর চেয়ে ভালো কিছু হতে পারে না। বিভিন্ন দেশে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ খেলার অভিজ্ঞতা ওর আছে, নিয়মিত খেলছে জাতীয় দলেও। যদিও অন্য বোলারদের সঙ্গে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করে ও। তবে আরেকটু ভালোভাবে করলে আমাদের জন্য আরো ভালো।’

মুস্তাফিজকে ভালো ‘নেতা’ হয়ে উঠতে দেখার অপেক্ষায় থাকা তামিম এবার যে পেস আক্রমণ নিয়ে ওয়ানডে সিরিজ খেলতে গেছেন, তাতে এই সার্টিফিকেটও দিয়ে ফেলছেন যে ‘সত্যি কথা বললে আগে যতবার (নিউজিল্যান্ডে) এসেছি, আমাদের এবারের পেস বোলিং আক্রমণ তার চেয়ে ভালো অবস্থায় আছে।

তাদের অবশ্যই এখানে ভালো করা লাগবে। কিন্তু এটা বলতে পারি যে এখনকার গ্রুপটা খুবই ভালো।’ kalerkanthoযাঁদের নিয়ে কিউইদের বিপক্ষে তাদের মাটিতে ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি ও ম্যাট হেনরিদের সঙ্গে টক্কর দেওয়াও সম্ভব বলে মনে করছেন বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো। বিশেষ করে তরুণ পেসারদের দিয়ে কিউইদের ভড়কে দেওয়ার কথাও তিনি ভাবছেন হয়তো, ‘আমাদের বেশ কয়েকজন তরুণ ফাস্ট বোলার উঠে এসেছে।

নিউজিল্যান্ডে হয়তো আগে ওদের সেভাবে দেখেইনি। আমার ধারণা, তারা হয়তো এই পেসারদের দেখার আশাও করছে না। কিন্তু ওরা দারুণ সম্ভাবনাময়। হাসান মাহমুদ, তাসকিন আহমেদরা দারুণ বোলিং করছে। যে ফাস্ট বোলাররা উঠে আসছে, তাদের নিয়ে আমরা রোমাঞ্চিত।’

দলে পেসারের ছড়াছড়ি থাকলেও একাদশে কতজনের ঠাঁই হবে, সেটি ডানেডিন থেকে কাল বিকেলের ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনেই স্পষ্ট করে দিয়েছেন তামিম, ‘আমরা অবশ্যই তিনজন ফাস্ট বোলার নিয়ে নামছি, এতটুকু বলে দিতে পারি। এরপর অলরাউন্ডাররা। অধিনায়ক হিসেবে আমি পাঁচজন বিশেষজ্ঞ বোলার নিয়ে খেলতে চাই। নিউজিল্যান্ডের কন্ডিশনে চারজন বোলার নিয়ে খেলতে নামলে অনেক সময় ব্যাপারটি বেশ কঠিন হয়ে ওঠে। কারণ খেলা হয় ছোট মাঠে, প্রচুর রানের ম্যাচও হয়। পাঁচজন বিশেষজ্ঞ বোলার নিয়ে খেলা তাই জরুরি। আমরা সেটিই করতে যাচ্ছি।’

About admin

Check Also

চুল পড়া কমাতে পেয়ারা পাতার ব্যবহার

নারী বা পুরুষ— উভয়ের জন্যই চুলের সৌন্দর্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, স্বাস্থ্যজ্জ্বল সুন্দর চুল সৌন্দর্য বৃদ্ধির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *